যে কোন ধরনের পরীক্ষা নেওয়ার প্ল্যাটফর্ম

by Author

বলতে গেলে করোনাভাইরাস (COVID-19) এর কারণে পৃথিবী বন্ধ হয়ে গেছে। যেসব জায়গা মানুষের পদচারণায় মুখর থাকে, সেগুলো দেখলে এখন ভূতুড়ে মনে হয়। একটি রোগে ঠেকানোর ক্ষেত্রে পুরো বিশ্ব যেভাবে প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে, সেটি নজিরবিহীন। প্রতিদিনের চলাচলের উপর নিষেধাজ্ঞা,  ভ্রমণের উপর নিষেধাজ্ঞা, গণ-জমায়েতের উপর বিধিনিষেধ।  

 

সব জায়গায় জায়গায় স্কুল, কলেজ ও অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। অনেক প্রতিষ্ঠান অনলাইনে শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে নিচ্ছে। অনলাইনে লেকচার ক্লাসের জন্য YouTube Live , Facebook Live, Messenger Group, Whatsapp, Zoom, Google hangout, Microsoft Teams, EzTalks  সহ অন্যান্য Social মিডিয়া ব্যবহার করা হচ্ছে। অনেক প্রতিষ্ঠান নিজস্ব প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করছে। আবার অনেক প্রতিষ্ঠান তৃতীয় পক্ষের কোন প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করছে। আমাদের সরকার সংসদ টিভির মাধ্যমে কিছু ক্লাসের ব্যবস্থা করেছে।   

আমাদের পর্যবেক্ষণ হল যেভাবেই অনলাইন ক্লাস নেওয়া হউক না কেন, আমাদের শিক্ষার্থীরা এটাকে অতটা গুরুত্বপূর্ণ মনে করছে না। উপস্থিতির হারও অনেক কম মানে নগন্য। আবার অনেকের সঠিক প্রযুক্তি ব্যবহারের সুবিধা নেই।   আমাদের দেশের শিক্ষার্থীদের সংস্কৃতি হল কোন পরীক্ষা না থাকলে তারা পড়ায় আগ্রহ দেখায় না। সুতরাং অনলাইনে যা পড়ানো হবে তার উপর কোন মূল্যায়ন নম্বর রাখলে শিক্ষার্থীরা  অনলাইন ক্লাসে আগ্রহী হবে। প্রযুক্তি ব্য়বহার করে  সঠিক  মূল্যায়ন করা যায়।

 

অনলাইনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সাপোর্টের জন্য www.ExamHelpBD.com কাজ করছে। এই প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তার শিক্ষার্থীদের জরুরী প্র্যাকটিস পরীক্ষা নিতে পারবেন। বাড়িতে বসে শিক্ষক ও পরীক্ষার্থীরা তাদের শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে নিতে পারবেন। বিশেষ করে যারা পরীক্ষার্থী তাদের MOCK পরীক্ষা ও মডেল টেষ্ট খুব সহজেই চালিয়ে নিতে পারবেন। ক্লাস পরীক্ষার (CT) মত ছোট পরীক্ষাগুলো অনায়াসেই নেওয়া যেতে পারে।  ভবিষ্যতে জাতীয় পরীক্ষা নেওয়ার মত প্রযুক্তি নিয়ে গবেষণা অব্যাহত আছে। হয়ত এর জন্য অনেক কাজ করতে হতে পারে। বড় আশা থাকা ভালো। করোনা পরিস্থিতিতে  দক্ষিণ কোরিয়া তাদের সব শিক্ষা কার্যক্রমকে অনলাইনের আওতায় নিয়ে এসেছে। আমরাও পারি আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থাকে আধুনিক করতে। 

 

শিক্ষাকে আরো ফলপ্রসু করতে ExamHelpBD একটি অভিনব ব্যবস্থা চালু করেছে।  এটি হল Personalized (ব্যক্তিগতকৃত) বা Customized  শিক্ষা  ব্যবস্থা। একটু সহজ করে বলি। যার যেমন দরকার তেমন ব্যবস্থা করা। একটি উদাহরণ দিয়ে বলি - ধরুন কিছু শিক্ষার্থী একটি রেস্তোরাঁয় গিয়েছে। তারা স্বভাবতই খাবারের তালিকা দেখে তাদের পছন্দমত মেনু নির্বাচন করবে। এটা  রেস্তোরাঁর ব্যবস্থাপকের খুশি মত নয়। তেমনি শেখার ক্ষেত্রেও বিভিন্ন শিক্ষার্থীর বিভিন্ন পদ্ধতি আছে। সবাই একভাবে নাও বোঝতে পারে। কোন শিক্ষার্থী কোন  পদ্ধতিতে বোঝে এটা যদি একজন শিক্ষক উদঘাটন করতে পারেন তাহলে খুব সহজেই ভালোভাবে বোঝাতে পারবেন। আর যদি শিক্ষক কোন একটি বিষয় সব শিক্ষার্থীকে একইভাবে বা একই পদ্ধতিতে বর্ণনা করেন তাহলে কেউ বোঝে আবার কেউ বোঝেনা। ব্যাপারটি অনেকটা এরকম- একজন ডাক্তারের কাছে কিছু রোগী গেলেন। ডাক্তার সাহেব সব রোগী কে একই ঔষধ  দিলেন। এবার বলুন সব রোগী কী উপকার পাবেন? শেখার ক্ষেত্রেও ঐ একই নিয়ম প্রযোজ্য। যে শিক্ষার্থী যে পদ্ধতিতে বোঝতে পারে তাকে সেই পদ্ধতিতে বোঝাতে হবে। এটা অত সহজ নয়। শিক্ষককে অনেক পরিশ্রম করতে হবে। সব শিক্ষার্থীকে ভালোভাবে জানতে  ও বোঝতে হবে । 

 

ব্যক্তিগতকৃত বা কাস্টমাইজড  শিক্ষা প্রদান  বর্তমানে ExamHelpBD এর মাধ্যমে ম্যানুয়ালি ও ছোট পরিসরে পরীক্ষামূলকভাবে চালানো হচ্ছে। এর ফলাফল অসাধারণ।  এতে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (AI)  জুড়ে দিতে পারলেই ১০০% সফল। তখন বড় পরিসরে চালু করা যাবে। 

  

যে কোন প্রতিষ্ঠান তাদের নিয়োগের বাছাই পরীক্ষা এই প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে নিতে পারবেন। আপনি আপনার ইচ্ছা মত প্রশ্ন সেট করে যে কোন জায়গা থেকে যে কোন সময় পরীক্ষা নেওয়া, মূল্যায়ন ও ফলাফল তৈরি করতে পারবেন।   

আবার গৃহ শিক্ষকগণ তাদের শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা নিতে পারবেন এই প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে। নিচের লিংকে দেওয়া Video টি খুব উপকারে আসবে।

https://youtu.be/iGzHwCC77hM

 

এই প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে যে সুবিধা পাওয়া যাবে:

  • নির্ভুলভাবে প্রশ্ন তৈরি করা, পরীক্ষা নেওয়া, মূল্যায়ন ও ফলাফল পাওয়া যায়।
  • পরীক্ষা নেওয়ার পরই স্বয়ংক্রিয়ভাবে  মূল্যায়ন ও ফলাফল পাওয়া যায়।
  • যে কোন সময় যে কোন স্থান থেকে পরীক্ষা নেওয়া যায়।
  • প্রশ্ন তৈরি করা, পরীক্ষা নেওয়া, মূল্যায়ন করা ও ফলাফল তৈরির কোন বাড়তি খরচ নেই।
  • প্রশ্নপত্র ফাঁস হওয়ার কোন সম্ভাবনা নেই।
  • প্রশ্নকর্তা যাদের নির্বাচন করবেন শুধু তারাই পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করতে পারবেন।
  • পরীক্ষা শুরু করলে  স্বয়ংক্রিয়ভাবে সময়  গণনা শুরু হবে।

 

যে প্রতিষ্ঠান গুলো এই সেবা নিতে পারবেন:

  • যে কোন স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়
  • যে কোন শিক্ষা সহায়ক প্রতিষ্ঠান অর্থাৎ বিভিন্ন কোচিং সেন্টার
  • যে কোন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান যারা কর্মকর্তা নিয়োগ করতে বাছাই পরীক্ষা নেয়
  • যে কোন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান যারা কর্মকর্তাদের পদোন্নতির জন্য পরীক্ষা নেয়

 

প্যাকেজের মূল্য:

  • প্রথম যে কোন একটি পরীক্ষার জন্য কোন বেস ফি লাগবে না এবং প্রথম ১০ জন পরীক্ষার্থীর জন্য কোন পরীক্ষা ফি লাগবে না। কিন্তু প্রথম পরীক্ষার জন্য যদি ১০ জনের বেশি পরীক্ষার্থী হয় তাহলে অতিরিক্ত পরীক্ষার্থীর প্রতিজনে ৫০*টাকা ফি লাগবে।
  • পরবর্তী যে কোন পরীক্ষার জন্য বেস ফি (১০০০টাকা)+ ৫০*টাকা ×পরীক্ষার্থী সংখ্যা

 

কীভাবে প্রশ্ন সেট করা যায় তা নিচের লিংক থেকে জেনে নিতে পারবেন:

https://examhelpbd.com/post/how-can-you-earn-by-uploading-question-papers

 

কী ধরণের দক্ষতা থাকলে একজন শিক্ষক প্রশ্নপত্র তৈরি করতে পারেন তা নিচের লিংক থেকে জেনে নিতে পারবেন:

https://examhelpbd.com/post/skills-required-for-the-resource-persons

 

স্মরণকালের ইতিহাসে করোনা সবচেয়ে বড় আকারের মহামারি তাতে কোন সন্দেহ নেই। এই সময় সবার আগে জীবন বাঁচানোর জন্য কাজ করতে হবে। তারপর অন্যান্ন মৌলিক চাহিদাগুলো নিয়ে চিন্তা করতে হবে। বর্তমান পরিস্থিতিতে যে শিক্ষকদের হাতে সময় আছে তারা ExamHelpBD এর মাধ্যমে তাদের ছাত্র-ছাত্রীদের পড়লেখা ফলপ্রসূভাবে চালিয়ে যেতে পারেন। এর মাধ্যমে তারা মানসিকভাবে কিছুটা ভালো থাকতে পারেন এবং তাদের ছাত্র-ছাত্রীদের মানসিকভাবে কিছুটা ভালো রাখতে পারেন ।

 

ExamHelpBD তে কীভাবে পরীক্ষা নেওয়া যাবে   তা জানতে পারবেন নিচের লিংক থেকে:

https://youtu.be/k3oweHbLEEk

 

 

 


 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

Frequently Asked questions FAQ

For Any Help Visit Help Menu